পাইবাসের উপস্থাপনায় খুশি বিসিবি

0
18

পপুলার২৪নিউজ ডেস্ক:
প্রজেক্টরের মাধ্যমে দুই ঘণ্টা ধরে রিচার্ড পাইবাস বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালকদের সামনে নিজের কর্ম-পরিকল্পনা দেখিয়েছেন। দীর্ঘমেয়াদি ও বিশ্বকাপ নিয়ে তার দুটি পরিকল্পনায় কী থাকছে সেগুলো বর্ণনা করেছেন তিনি।

পাইবাসের সঙ্গে বুধবারের সাক্ষাৎকারে খুশি বিসিবি। এ সাক্ষাৎকার পর্বে পাইবাসের উপস্থাপনা দেখেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান এবং পরিচালক আকরাম খান, ইসমাইল হায়দার মল্লিক, জালাল ইউনুস, এনায়েত হোসেন সিরাজ, লোকমান হোসেন ভূঁইয়া, মঞ্জুর কাদের ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব নিতে আগ্রহী পাইবাসের পরিকল্পনা বিসিবি কর্মকর্তাদের কাছে বিদায়ী কোচ হাথুরুসিংহের পরিকল্পনার মতোই মনে হয়েছে।

রোববার বোর্ড সভা রয়েছে। সেখানেই কোচের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। এর মধ্যে শনিবার ফিল সিমন্স বিসিবির সঙ্গে সাক্ষাৎকার দিতে বাংলাদেশে আসবেন।

বৃহস্পতিবার সাক্ষাৎকার দিতে আসছেন আরেক কোচ। এই কোচ সম্পর্কে বোর্ডের কেউই বিস্তারিত জানাতে চাননি। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি হাইপ্রোফাইল কোনো কোচ। তবে বিসিবির শঙ্কা, তিনি হয়তো মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক দাবি করতে পারেন।

আপাতত পাইবাসের উপস্থাপনায় দারুণ খুশি বিসিবি। ১০ বছরের দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনায় পাইবাস জানিয়েছেন, চারটি আঞ্চলিক একাডেমি করতে হবে। সেখানে যারা ভালো করবে তাদের ঢাকায় এনে পরিচর্যার মাধ্যমে তৈরি করা হবে। খেলোয়াড়দের পাইপলাইন তৈরির দিকেই তিনি বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন।

বিসিবি বলেছে, দলকে ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে পাঁচ এবং টেস্টে আরও দু’ধাপ এগিয়ে আনতে হবে। ওয়ানডে বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে খেলার প্রত্যাশা জানিয়েছে বোর্ড।

পাইবাস বোর্ডকে বলেছেন, ‘আমি যদি কিছু দিতেই না পারি তাহলে আমাকে রাখবেন কেন?’

বুধবার পাইবাসের সঙ্গে আলোচনা হওয়ার কথা ছিল বেলা ১১টায়। পাইবাস সকাল সাড়ে ১০টায় বোর্ডে চলে আসেন। আলোচনা শুরু হয় ১২টার দিকে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বোর্ডের এক পরিচালক বলেন, ‘বিশ্বের যতো হাইপ্রোফাইল কোচ আছেন তাদের প্রায় সবার সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করেছি। কিন্তু অধিকাংশই আসতে চাচ্ছে না।’

বিসিবি স্টিভেন ফ্লেমিং, জাস্টিন ল্যাঙ্গার, অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার, গ্যারি কারস্টেন, টম মুডি, অনীল কুম্বলে ও ভিভিএস লক্ষ্মণের সঙ্গে কথা বলেছে। তারা কোনো না কোনো কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকায় বাংলাদেশে আসতে রাজি নন। যদি কেউ বড় মাপের কোচ এনে দিতে পারেন তাকে মোটা অঙ্কের কমিশনও দিতে রাজি বোর্ড।

কাল পাইবাসের সঙ্গে আলোচনার পর বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, ‘আমরা অনেকের সঙ্গেই যোগাযোগ করেছি। যাদের সংক্ষিপ্ত তালিকা করেছি তাদের চূড়ান্ত প্রক্রিয়ার মধ্যে নিয়ে এসেছি। পাইবাস তার পরিকল্পনা আমাদের দেখিয়েছেন। ৯ ডিসেম্বর ফিল সিমন্স আসবেন। এর মধ্যে আরও একজন আসবেন। ১০ ডিসেম্বর আমাদের বোর্ড সভা রয়েছে। সেখানেই কোচের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলতে চাই।’

বিসিবির সঙ্গে পাইবাসের আগের তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়েও বোর্ড সভাপতির সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। নাজমুল হাসান বলেন, ‘আগের অভিজ্ঞতা নিয়ে তাকে প্রচুর প্রশ্ন করা হয়েছে। আর বিগত বোর্ডের সময় কী হয়েছিল সেটা নিয়ে বেশি কথা না বলাই ভালো।’