গমে ব্লাস্ট রোগ, কৃষকের মাথায় হাত

0
100

পপুলার২৪নিউজ,জেলা প্রতিনিধি:

22কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় গমের জমিতে ব্লাস্ট নামক ছত্রাকের প্রকোপে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন চাষীরা।

সরকারের কৃষি কর্মকর্তারা রোগ প্রতিরোধে কোনো উপায় দিতে না পারায় বড় ক্ষতির মুখে পড়েছেন তারা।

ইতিমধ্যে কৃষি সম্পসারণ অধিদফতরের পরামর্শে চাষীরা আক্রান্ত জমির গম পুড়িয়ে ফেলছেন। অনেকেই আবার গম কেটে তা গো-খাদ্য হিসেবে ব্যবহার করছেন।

সম্প্রতি উপজেলার বাহিরচর ইউনিয়নের পশ্চিম চরদামুকদিয়া মাঠে কৃষক আমির হোসেনের এক বিঘার গম জমিতে ব্লাস্ট রোগের লক্ষণ চিহ্নিত হয়।

বিষয়টি অবগত হয়ে মাঠ পরিদর্শন করেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কর্মীরা। তবে তাদের কাছে রোগ প্রতিরোধের উপায় না থাকায় সোমবার দুপুরে ব্লাস্ট আক্রান্ত এক বিঘা জমির গম কেটে ফেলা হয়।

সংশ্লিষ্ট ব্লকের উপসহকারী কৃষি অফিসার উক্ত গমের জমিতে প্রথমে ব্লাস্ট রোগের উপস্থিতি লক্ষ্য করে সুনিশ্চিত হওয়ার জন্য ভেড়ামারা উপজেলা কৃষি অফিসার আব্দুল মজিদ ও কৃষি সম্প্রসারণ অফিসারকে অবগত করেন।

সংবাদ পেয়ে উপজেলা কৃষি অফিসারসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কর্মকর্তারা উক্ত গমের জমিতে উপস্থিত হয়ে গমের ব্লাস্ট রোগ সম্পর্কে নিশ্চিত হন।

পরে তারা কৃষি সম্পসারণ অধিদফতরের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবগত করেন।

খবর পেয়ে কুষ্টিয়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর উপপরিচালক ড. এম সাহাব উদ্দীন, অতিরিক্ত উপপরিচালক (শস্য) ড. হায়াত মাহমুদ ও উপজেলা কৃষি অফিসার এবং অন্যান্য কর্মকর্তারা সরেজমিনে উক্ত ব্লাস্ট আক্রান্ত জমি পরিদর্শন করে সংশ্লিষ্ট কৃষকের মাধ্যমে ব্লাস্ট আক্রান্ত জমির গম কেটে ব্লাস্ট রোগ দমন করেন।

১৯৮৫ সালে ব্রাজিলে প্রথম এ রোগটি দেখা দিলেও এশিয়া মহাদেশের মধ্যে বাংলাদেশেই প্রথম এবার রোগটি দেখা দিল। যেহেতু রোগটি এ দেশে নতুন তাই বিজ্ঞানী, সম্প্রসারণকর্মী, কৃষক এমন কি নীতি নির্ধারকদের মধ্যেও রোগটি নিয়ে বিশেষ আগ্রহ দেখা দিয়েছে।

বারির হিসেবে দেশের অন্যতম গম উৎপাদনকারী এলাকা মেহেরপুর, ঝিনাইদহ, যশোর, কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা, বরিশাল ও ভোলার প্রায় ১৫ হাজার হেক্টর জমির গম মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই রোগের কারণে এবার দেশে ২০ শতাংশ গম কম উৎপাদিত হবে বলে আশংকা করা হচ্ছে।