খালেদা জিয়াকে পরিত্যক্ত কারাগারে রেখে মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে সরকার

0
14
 পপুলার২৪নিউজ প্রতিবেদক:

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পরিত্যক্ত কারাগারে সাধারণ কয়েদির মতো রেখে সরকার মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে বলে অভিযোগ করেছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এ অবস্থায় খালেদা জিয়াকে গণআন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক অবস্থান কর্মসূচিতে এ আহ্বান জানান ফখরুল।

দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ড নিয়ে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এ কর্মসূচি পালন করছেন বিএনপি ও ২০ দলের নেতাকর্মীরা।

কর্মসূচিটি প্রথমে জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে ও পরে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন চত্বরে করার চেষ্টা করেছিল বিএনপি। কিন্তু দুই জায়গায় অনুমতি না পেয়ে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান পালন করছে দলটি।

এতে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা থেকে কয়েক হাজার নেতাকর্মী যোগ দিয়েছেন। তারা খালেদা জিয়াকে মা সম্বোধন করে নানা স্লোগান দিয়ে নয়াপল্টন এলাকা মুখরিত করে তোলেন। এর মধ্যে তরুণ কর্মীদের মুখে মুখে ফিরে- ‘বন্দি আছে আমার মা, ঘরে ফিরে যাব না’ স্লোগানটি।

অবস্থান কর্মসূচিতে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর,স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, জয়নাল আবদীন ফারুক, হাবিবুর রহমান হাবিব, আবুল খায়ের ভূইয়া, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ সেলিম ভূইয়া, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সহ-সম্পাদক কাদের গণি চৌধুরী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নিরব, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দীন টুকু, সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান প্রমুখ।

এছাড়া ২০ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে এলডিপির শাহাদত হোসেন সেলিম, ন্যাপের গোলাম মোস্তফা ভূইয়া, এনপিপির মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, জাগপার খন্দকার লুৎফর রহমান, এনডিপির মঞ্জুর হোসেন ঈশা, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান নিরব, পিজিপির আব্দুল মতিন সাউদ প্রমুখ উপস্থিত রয়েছেন।

অবস্থান কর্মসূচি থেকে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করছে বিএনপির শীর্ষ নেতারা। খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে নানা স্লোগান দিচ্ছেন তারা।

এর আগে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এই কর্মসূচি পালন করা হবে বলে জানিয়েছিলেন রিজভী। পরবর্তীতে রাতে নয়াপল্টন থেকে প্রেরিত ক্ষুদে বার্তায় ভেন্যু পরিবর্তন করে রমনাস্থ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে এই কর্মসূচি পালন করা হবে বলে জানানো হয়।

সবশেষ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় ফের ভেন্যু পরিবর্তন করে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে কর্মসূচি পালন করা হবে বলে জানান রিজভী। বিএনপির এই নেতা বলেন, ডিএমপি কমিশনার আমাদেরকে দলীয় কার্যালয়ের সামনে এই কর্মসূচি পালন করার কথা বলেছেন।

বিএনপির এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে বরাবরের মতো আজো অসংখ্য নেতাকর্মীর উপস্থিত রয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা জানিয়েছেন যেকোনো ধরণের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে তারা সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন।